,
সংবাদ শিরোনাম :
» « পীরগঞ্জে স্বেচ্ছাসেবক লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত» « পীরগঞ্জে মশক নিধন ও পরিচ্ছন্নতা সপ্তাহ উপলক্ষে র‌্যালী» « বালিয়াডাঙ্গীর পাড়িয়া ইউনিয়নে জিল্লুর চেয়ারম্যান নির্বাচিত» « পীরগঞ্জে ছেলে ধরা সন্দেহে ব্রডব্যান্ড সংযোগ প্রদান কাজে নিয়োজিত কর্মীকে গন পিটুনি» « পীরগঞ্জে টিএন্ডটি রাস্তার সংস্কার কাজ শুরু» « পীরগঞ্জে পঞ্চগড় এক্্রপ্রেস ট্রেনের যাত্রা বিরতি চায় এলাকাবাসী» « জাতীয় নারী ফুটবল চ্যাম্পিয়নশীপে বাফুফের ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে ঠাকুরগাঁওয়ে বিক্ষোভ» « কাউকে গোনায় ধরেন না সানি লিওন» « গ্রামীণফোন ও রবির ব্যান্ডউইথ কমালো বিটিআরসি» « পীরগঞ্জে দুর্যোগ সহনীয় ঘড় নির্মান কার্যক্রম পরিদর্শন

রানীশংকৈলে ইউএনও’র অবহেলায় কারাগার সংস্কার হয়নি

রানীশংকৈল (ঠাকুরগাঁও): সরকার দেশে সরকারি ভাবে ২৫ টি উপজেলা কারাগার সমাজ সেবা অধিদপ্তর ও মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরকে অনূষ্ঠানিক ভাবে হস্তান্তর করলেও ঠাকুরগাঁওয়ের রানীশংকৈল উপজেলা কারাগারটি ইউএনও’র অবহেলায় সংস্কার কাজ শুরু হয়নি। জানাযায়, এরশাদ সরকারের সময়ে উপজেলা ভিক্তিক কারাগার নির্মাণ করে বিচার কাজ করা হয়। পরবর্তীতে বিচার কার্যক্রম জেলা পর্যায়ে স্তানান্তর করা হলে পড়ে থাকে উপজেলা কারাগার গুলি। ২০০৩ সালে সরকার দেশের ২৫টি উপজেলা কারাগার সমাজ সেবা অধিদপ্তর ও মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরকে অনূষ্ঠানিক ভাবে হস্তান্তর করার আদেশ প্রদান করে। তৎকালিন উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা ২০০৩ সালে আগষ্ঠ মাসে শিক্ষা কর্মকর্তা কে আহবায়ক করে ৩ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করে মহিলা বিষয়ক দপ্তরকে অফিস ও প্রশিক্ষণ কেন্দ্র হিসাবে চালানোর জন্য করাগারটি হস্তান্তর করেন। জরাজীর্ণ অবস্থায় দীর্ঘ ১ বছর মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার অফিস কার্যক্রম চালালেও বিদ্যুৎ সংযোগ না থাকায় এবং থাকার অনূপোযোগি হওয়ায় তারা ভারাটিয়া ভবনে অফিস পরিচালনা করে। কারাগারটি সংস্কারের করার জন্য মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর ২১৬ নং স্মারকে (৩-৯-১৫ তারিখে ) উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা খন্দকার মোঃ নাহিদ হাসানকে ৩৩ শতক জমি নির্বাচন করে জমির সার্বিক অবস্থা, যাতায়াত সুবিধা, স্থানীয় নকশা, ডিজিটাল সার্ভে ম্যাপ তৈরি করার জন্য অফিস আদেশ প্রদান করেন। উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা খন্দকার মো. নাহিদ হাসান আদেশ টি ২১-১০-১৫ তারিখে পাওয়ার পরও চাহিদা মোতাবেক রিপোর্ট প্রেরণ না করায় অন্যান্য উপজেলায় সংস্কার কাজ শুরু হলেও রানীশংকৈলে কারাগারের কাজ শুরু হয়নি । ফলে এ উপজেলার উন্নয়ন মূলক কাজ যেমনি ভাবে ব্যাহত হচ্ছে অপরদিকে ভাড়া দিয়ে অফিস চালাতে মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তাকে। এ প্রসঙ্গে মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মোর্শেদ আলী খানকে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন, আমি সেখানে অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করছি এবিষয়ে তেমন কিছু বলতে পারবো না। তবে কর্মজীবি মহিলা হোষ্টেল, প্রশিক্ষণ কেন্দ্র কারাগারে স্থাপন করা হবে। এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা খন্দকার মো. নাহিদ হাসান বলেন, মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের চিঠিটা দেখতে হবে। তাছাড়া কিছু বলা যাবে না।

print

(Visited 65 times, 1 visits today)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সর্বশেষ সংবাদ