,
সংবাদ শিরোনাম :
» « বিজয় দিবসে বাড়ি বাড়ি পতাকা উড়াতে জুঁই’র প্রচেষ্টা» « পীরগঞ্জে মৃত্যু পথযাত্রী শিশু লামকে বাচাঁতে মাতার আকুতি» « পীরগঞ্জে মাথা ফাটল দারোগার : আটক ৫» « পীরগঞ্জে চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেটের ভাবীর ইন্তেকাল» « পীরগঞ্জে স্বেচ্ছাসেবক লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত» « পীরগঞ্জে মশক নিধন ও পরিচ্ছন্নতা সপ্তাহ উপলক্ষে র‌্যালী» « বালিয়াডাঙ্গীর পাড়িয়া ইউনিয়নে জিল্লুর চেয়ারম্যান নির্বাচিত» « পীরগঞ্জে ছেলে ধরা সন্দেহে ব্রডব্যান্ড সংযোগ প্রদান কাজে নিয়োজিত কর্মীকে গন পিটুনি» « পীরগঞ্জে টিএন্ডটি রাস্তার সংস্কার কাজ শুরু» « পীরগঞ্জে পঞ্চগড় এক্্রপ্রেস ট্রেনের যাত্রা বিরতি চায় এলাকাবাসী

জাতীয় নারী ফুটবল চ্যাম্পিয়নশীপে বাফুফের ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে ঠাকুরগাঁওয়ে বিক্ষোভ

তারেক হোসেন।।

জেএফএ কাপ অনুর্ধ-১৪ জাতীয় নারী চাম্পিয়ানশীপ ফাইনাল খেলার পূর্বমুহুর্তে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) ষড়যন্ত্র স্বেচ্ছাকারী ও হঠকারী সিদ্ধান্তের কারণে ফাইনাল খেলায় অংশ নিতে দেয়া হয়নি ফাইনালিস্ট ঠাকুরগাঁও নারীদলকে। বাফুফের এমন সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানিয়েছে ঠাকুরগাঁওয়ের নাগরিক সমাজ ও ক্রীড়াপ্রেমিরা।
রবিবার সকাল ১১ টায় শহরের চৌরাস্তায় ঠাকুরগাঁও নাগরিক অধিকার আন্দোলনের আয়োজনে দুইঘন্টা ব্যাপী বৃষ্টি উপেক্ষা করে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
প্রতিবাদ সমাবেশে ঠাকুরগাঁও নাগরিক অধিকার আন্দোলনের আহবায়ক আতাউর রহমান রানার সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, সুজন ঠাকুরগাঁও জেলা শাখার সভাপতি অধ্যাপক মনতোষ কুমার দে, সম্পাদক আব্দুল লতিফ, ঠাকুরগাঁও সাংবাদিক কল্যান ট্রাষ্টের সাধারন সম্পাদক শাহিন ফেরদৌস, নাগরিক অধিকার আন্দোলনের সদস্য সচিব মাহমুদ হাসান প্রিন্স, জেলা ফুটবল একাডেমির সভাপতি ফারুক হোসেন জুলু, সাধারণ সম্পাদক মোঃ কায়েস, সদর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল ওয়াফু তপু, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মাহাবুব হোসেন রনি, জেলা যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক সুমন ঘোষ, নাগরিক আন্দোলনের সংগঠক মাসুদ আহম্মেদ সুর্বণ, অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন নাগরিক অধিকার আন্দোলনের সদস্য ও জেলা উদীচীর সাধারণ সম্পাদক রেজওয়ানুল হক রিজু। বক্তারা বলেন বাফুফের ষড়যন্ত্র, স্বেচ্ছাকারী ও হঠকারী সিদ্ধান্তের ফলেই ঠাকুরগাঁও জেলার নারী ফুটবল দল ফাইনাল খেলতে পারেনি। তাদের স্বেচ্ছাতারিতার ফলে সম্ভাব্য চাম্পিয়ন হওয়ার যোগ্য দলটিকে বঞ্চিত করা হয়েছে। অতিবিলম্বে কর্তৃপক্ষ তদন্ত পূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের দাবী জানান। দ্রæত ব্যবস্থা না নেয়া হলে ঠাকুরগাঁবাসী বৃহত্তর আন্দোলনের ডাক দেওয়ার কথা বলেন।
নারী ফুটবলার লাবন্য রায়, রঞ্জনা, চন্দনা ও সাবনুর জানান, বাফুফের অভিযোগ চারজন খেলোয়াড়ের বিরুদ্ধে। সেটা প্রমাণও করতে পারেনি। আমাদের মধ্যে চারজন খেলোয়াড়কে বাদ দিয়ে ফাইনাল খেলার সুযোগ দেওয়া হয়নি। ফাইনাল খেলার ১ ঘন্টা পূর্বে আমাদের জানানো হলো যে আমরা ফাইনাল খেলতে পারবোনা। আমরা মাঠে প্রতিবাদ করতে গেলে মাঠ থেকে পুলিশ দিয়ে বের করে দেওয়া হয়েছে এবং ঘরে তালাবন্ধ করে ৃরাখা হয়েছে। আপিল করার কোন সুযোগ দেওয়া হয়নি। আমাদের প্রতি অবিচার করা হয়েছে। আমরা এটার সুষ্ঠু বিচার চাই।
প্রসঙ্গত, জেএফএ কাপ অনূর্ধ্ব-১৪ নারী ফুটবলের সেমিফাইনালে ময়মনসিংহকে হারিয়ে ফাইনালে উঠে ঠাকুরগাঁও। ফাইনালে উঠলেও বাফুফের বাইলজের নিয়মে বাদ পড়ে যায় দলটি।
তারেক

print

(Visited 44 times, 1 visits today)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সর্বশেষ সংবাদ